Tanvir Shahriar Rimon

Share on facebook
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on email

যে বিশ্বাস তোমার কর্মে প্রতিফলিত হয়না, ওটা কোনো বিশ্বাসই না !

1+

আমার এক বন্ধু বিদেশে থাকে । সে আবার স্বঘোষিত এথিষ্ট (অবিশ্বাসী) !

প্রায় মাস ছ’মাস আগে তার সাথে কথা হচ্ছিল ! একটা বিপদে পড়েছে সে । ভীন দেশ ! ভীন জাতী ! ওখানে ওর আত্নীয়স্বজন-বন্ধুজন বলতে তেমন কেউ নেই । হাজবেন্ড এর সাথে ছাড়াছাড়ি হয়ে যাওয়ায় একমাত্র সন্তানকে নিয়ে ভিসা সংক্রান্ত এক কঠিন জটিলতায় পড়ে সে ।

আমাকে কথা প্রসঙ্গে বলে, দোয়া করো !
-দোয়া ?
-হ্যা, দোয়া করো !
-আচ্ছা দোয়া করব । তোমার-আমার রক্ষাকারী তো ঐ একজনই । তা তুমি বিশ্বাস করো কিংবা না করো !
-হাম ! দশ বছর তো দেশ ছাড়া। দেশে যদি ফিরতে হয় আয় রোজগারের কি ব্যবস্থা হবে জানিনা !
-শোনো , আল্লাহর দুনিয়ায় কেউ কোনো কিছুর জন্য ঠেকে থাকবেনা ।
-দেশে কোন চাকরি নাই আমি সবার কাছে শুনেছি !
-তুমি কী চাও যে আমি তোমাকে চাকরি পেতে সহযোগিতা করি ?
-না, এখন আমি এখানে একটা কাজের চেষ্টা করছি । হয়ে গেলে যেভাবেই হোক মাটি কামড়ে পড়ে থাকব । নাহলে দেশে ফিরতে হবে । দেখা যাক কপালে কি আছে !
-নিজে নিজে কতো কিছু করা যায় । চাকরি নাহলে অন্য কিছু করবা । মন বড় রাখো । আল্লাহ একটা ব্যবস্থা করবেন ।
-হ্যা, তুমি দোয়া করো , দোয়ার কথা আবার বলল সে ।
-অবশ্যই করব । তবে দেখো, যার কাছে চাইব তুমি তাকে কোনো নামেই ডাকনা । আমি বিশ্বাস থেকে আল্লাহ নামে ডাকি । কেউ কেউ ডাকে অন্য নামে । বাট হি এক্সিসটস , ফর শিউর !
-থাকলেই হল রিমন। আমার যে বিশ্বাস নাই সেজন্য আমার খুব মন খারাপ হয় !
-মন খারাপ করোনা । এটা তুমি নির্ধারণ করনি ।
-এইযে এত বিপদে আছি, যদি বিশ্বাস থাকত, ভরসা পেতাম ।
-বিশ্বাস বিরাট এক শক্তি, বন্ধু !
-সত্যি রিমন, এট বুঝি এখন !

আমার সেই বন্ধুকে দেশে ফিরতে হয়নি । সে বিদেশে কাজ পেয়েছিল । তার সন্তানকে নিয়ে সে ভালোই আছে । আজ আমার ওই বন্ধুর কথা মনে পড়ছে ।

রমজানে এবার খতম দেবার ইচ্ছে থেকেই কোরআন পড়া শুরু করেছি । প্রায় ৫ পারা শেষ হলো আজ । অর্থ সহ পড়ছি তাই একটু সময় লাগছে । কিন্তু বুঝে পড়ার চেষ্টা করছি । বাকারাহ, ইমরান, এবং নিসা শেষ করলাম । প্রতিটি লাইনে লাইনে অদ্ভুত সব নির্দশন বিশ্বাসীদের জন্য !

ব্যাংক থেকে এতদিন যে সুদ নিয়ে চলতাম, সেটা ছেড়ে দিতে হবে? মাসে মাসে এতগুলো টাকা !
-হ্যা ছেড়ে দিতে হবে, যদি বিশ্বাসী হও !

ঘুষ ? চাল চুরি ? এসব ?
-হ্যা, হারাম ! ছাড়তে হবে-যদি বিশ্বাসী হও !

এতদিন যে অবৈধ সম্পর্কে জড়াতাম-রামের বউ সামের সাথে, সামের বউ রকির সাথে ?
-হ্যাঁ, এসবও ছেড়ে দিতে হবে একদম-যদি বিশ্বাসী হও !

হায় হায়! রাতের পার্টি, ডিস্কো, হুইস্কির আস্বাদ ? ডজন খানেক বান্ধবী ?
-হ্যা, হ্যা, এইসব বাদ-যদি বিশ্বাসী হও !

কাস্টমস ফাঁকি দিয়ে আর মাল আনতে পারব না? ট্যাক্স দিতে হবে পুরা ? ব্যবসা চলবে কী করে তবে ?
-হ্যা, সব ফাঁকি বন্ধ করতে হবে । এবং সব ব্যবসাই চলবে ঠিকঠাক-যদি তুমি বিশ্বাসী হও !

শোনো, যে বিশ্বাস তোমার কর্মে প্রতিফলিত হয়না, ওটা কোনো বিশ্বাসই না !

আমার যে বন্ধুটির গল্প বললাম, সে কোনো বিশ্বাসী না । সে স্বঘোষিত অবিশ্বাসী -আমি আপনি যাদেরকে নাস্তিক বলে ডাকি ! আমরা যারা বিশ্বাসী দাবী করি নিজেদের তাদের বিশ্বাস কী কর্মে প্রতিফলিত হয় ? তাই আবার বলি, যে বিশ্বাস তোমার কর্মে প্রতিফলিত হয়না, ওটা কোনো বিশ্বাসই না !

Leave a Reply