Tanvir Shahriar Rimon

Share on facebook
Share on linkedin
Share on whatsapp
Share on email

সাঁতরে অফিসে যাব !

0

সাঁতরে অফিসে যাব !  

-তানভীর শাহরিয়ার রিমন 

সকালের নাস্তা শেষে অফিসে যাবার জন্য তৈরী হচ্ছিলাম । হঠাৎ লক্ষ্য করলাম আমার বাসায় ফিসফিসানি শুরু হয়ে গেছে । রুমী কী কারনে যেন দৌড়ে আমার বউয়ের কাছে গেল ! ফিসফিস করে কী যেন বলছে, আমি কান খাড়া করে শোনার চেষ্টা করি !

-আন্টি, আন্টি , আংকেল এর মাথা মনে হয় আউলা হইয়া গ্যাছে !

-কেন ? কী করছে ?

-আন্টি, আংকেলনা শার্ট প্যান্ট না পইরা সুইমিং প্যান্ট পইরা অফিসে চইলা যাইতেছে !!!

রুমির কথা শেষ হতে না হতে আমার বউ আর মেয়ে দৌড়ে আসল !

আমার বউ চোখকট মট করে বলল, কী ঢং শুরু করছ ? সুইমিং শর্ট পরে কই যাও সকালে ?

আমার উত্তর দেয়ার আগে আমার মেয়ে বলে, মা, বাবা সুইমিং করতে যায় !

আমার বউ এবার খানিকটা কপট রেগে বলে, কী, কথা বলছ না কেন ?

-আমি এবার আমতা আমতা করে বলি, অফিসে জরুরি মিটিং আছে ! আমাকে যেভাবেই হোক অফিসে যেতে হবে । ইব্রা (ড্রাইভার) বলল, দুইনাম্বার গেইট, প্রবত্তক মোড় পানির নিচে । কোথাও কোথাও কোমর পানি ! গাড়ী বের করা রিস্ক হয়ে যাবে । তাই চিন্তা করছি সাঁতরে অফিসে যাব । রাতে আর জিমে যাওয়া লাগবেনা । কার্ডিও এক্সারসাইস ভালোই হবে ! আমি সুইমিং ক্যাপও নিয়েছি ! তুমি চিন্তা করোনা-বুক সাতার, প্রজাপতি সাতার আর ফ্রি স্টাইলে আমি পাকা আছি ! 

এমন সময় রুমির দিকে তাকিয়ে বললাম, আমার সুইমিং গ্লাসটা দে ! ডুব সাঁতারের একটা প্রেকটিসও আজকে সেরে নেব !

আমার বউ রেগেমেগে টেনে ফ্যামিলি লিভিং এ এনে আমাকে বসাল। বলল, দুপুরে খিচুড়ী রান্না করছি ! সাথে বেগুন ভাজা আর গরুর গোস্ত ! বলো, সাঁতার খেলতে খেলতে অফিসে যাবা নাকী বাসায় বসে খিচুড়ী খাবা ?

খিচুড়ী দিয়ে বেগুন ভাজা আমার ভীষণ প্রিয় । আমি আমার কোর্ডিনেটর লুইছেলকে ফোন করে বললাম, বৈরী আবহাওয়ার কারণে আমার আজকের সবগুলো মিটিং পোস্টপন্ড করে দাও…!

Leave a Reply